পৃষ্ঠা:সাধনা- দণ্ডিনাথ কলিতা.djvu/৩২৬

ৱিকিউৎসৰ পৰা
Jump to navigation Jump to search
এই পৃষ্ঠাটোৰ মুদ্ৰণ সংশোধন কৰা হোৱা নাই


সাধনা সকলাে বিষয়তে যেনে ব্যতিক্রম দেখা যায়, মানুহতাে তেনে ব্যতিক্রম ঘটিবই। সেই দেখিয়েই যস্য যল্লক্ষণং প্রােক্তং পুংসে ৱর্ণাভিব্যঞ্জক। যদন্যত্রাপি দৃশ্যেত তত্তেনৈৱ ৱিনির্দিশেৎ। | (শ্রীমদ্ভাগৱত-৭১১৩৫ ) অর্থাৎ পুৰুষৰ বৰ্ণজ্ঞাপক যি বৰ্ণৰ যি লক্ষণ কোৱা হৈছে তাক যদি আন বর্ণত দেখা যায়, তেনেহলে সেই লক্ষণ অনুযায়া বর্ণ নির্দেশ কৰিব লাগিব। চমুকৈ ক'ব লাগিলে পৈতৃক জাত যিয়েই থাকক, সন্তানৰ যাৰ গাত যি গুণ থাকে সি সেই মতেইহে জাত পাব। শূদ্র- সন্তান যদি শমদমাদি গুণযুক্ত হয়, তেন্তে তেওঁ ব্রাহ্মণ হ’ব, আৰু ব্ৰাহ্মণ- সন্তান যদি সেইবােৰ গুণবর্জিত হয়, তেন্তে তেওঁ ব্রাহ্মণ হৈ থাকিব নােৱাৰে। মনুৱে কৈছে- যােহনধীত্য দ্বিজো ৱেদমন্যত্র কুৰুতে শ্রম। স জীৱন্নেৱ শূদ্ৰত্বমাশু গচ্ছতি সাম্বয়ঃ ।। (মনু—২১৬৮) অর্থাৎ বেদপাঠ এৰি আন কামত ধৰা দ্বিজই শীঘ্ৰে সবংশে শূদ্ৰত্ব পায়। মহাভাৰতে কয় :- শূদ্রে চৈতৱেল্লক্ষ্য দ্বিজে তচ্চ ন ৱিদ্যতে। ন ৱৈ শূদ্রো ভৱেচ্ছদ্রো ব্রাহ্মণণা ব্রাহ্মণাে ন চ । (মহাভাৰত শান্তিপর্ব) এই লক্ষণবােৰ যদি শূদ্রত থাকে, ব্রাহ্মণত নাথাকে, তেন্তে সেই শূদ্রও শুদ্ৰ নহয়, ব্রাহ্মণণা ব্রাহ্মণ নহয়।